সিআইপি নির্বাচিত হলেন ৫৭ প্রবাসী বাংলাদেশি।

2
সিআইপি নির্বাচিত হলেন ৫৭ প্রবাসী বাংলাদেশি। CIP Commercially Important Person Probashi

সিআইপি নির্বাচিত হলেন ৫৭ প্রবাসী বাংলাদেশি। বাংলাদেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ২০১৯ সালের জন্য ৫৭ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে সিআইপি (বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি) নির্বাচিত করেছে সরকার। গত ২৪ নভেম্বর প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালইয়ের এক প্রজ্ঞাপনে তিনটি আলাদা ক্যাটাগরিতে ২০১৯ সালের জন্য নির্বাচিত প্রবাসী এনআরবি-সিআইপি তালিকা প্রকাশ করা হয়। ১৮ ডিসেম্বর ঢাকায় আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের অনুষ্ঠানে নির্বাচিত প্রবাসী সিআইপিদের মধ্যে সনদ প্রদান করা হবে।

প্রতিবছর মোট তিনটি ক্যাটাগরিতে এ সম্মাননা দেওয়া হয়ে থাকে। ক্যাটাগরিগুলো হলো- বাংলাদেশে বৈধ চ্যানেলে সর্বাধিক বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণকারী অনিবাসী বাংলাদেশি, বিদেশে বাংলাদেশি পণ্যের আমদানিকারক অনিবাসী বাংলাদেশি, বাংলাদেশে শিল্পক্ষেত্রে সরাসরি বিনিয়োগকারী অনিবাসী বাংলাদেশি। এ বছর বাংলাদেশে বৈধ চ্যানেলে সর্বাধিক বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণকারী অনিবাসী বাংলাদেশি  ক্যাটাগরিতে ৪৭ জন, বিদেশে বাংলাদেশি পণ্যের আমদানিকারক অনাবাসী বাংলাদেশি ক্যাটাগরিতে ৯ জন, এবং বাংলাদেশে শিল্পক্ষেত্রে সরাসরি বিনিয়োগকারী ক্যাটাগরিতে একজন প্রবাসী বাংলাদেশিকে সিআইপি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

নির্বাচিত সর্বমোট ৫৭জন সিআইপিদের মধ্যে ৩৭ জন সিআইপি মধ্যপ্রাচ্যে থাকেন। এদের মধ্যে ২৬ জন সিআইপি সংযুক্ত আরব আমিরাতে আছেন। ৯ জন সিআইপি রয়েছেন ওমানে। যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছেন ৩ জন সিআইপি । এছাড়াও মালয়েশিয়া, জাপান, ইতালি, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ও থাইল্যান্ডের ২ জন করে এবং কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, সিঙ্গাপুর, মালদ্বীপ ও কম্বোডিয়ার একজন করে প্রবাসী বাংলাদেশি সিআইপি নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচিত সিআইপিরা হলেন মোহাম্মদ মাহতাবুর রহমান, মোহাম্মদ মাহাবুব আলম, ওমর ফারুক, মোহাম্মদ মনির হোসেন, সাইফুল ইসলাম, ফখরুল ইসলাম, আবুল কালাম, রিপন দত্ত, আবদুল হালিম, ইব্রাহিম ওসমান আফলাতুন, মোহাম্মদ আশফাকুর রহমান, মোহাম্মদ সেলিম, মোহাম্মদ আইয়ুব আলী বাবুল, আবদুল গণি চৌধুরী, মোরশেদুল ইসলাম, মো. ইউনুছ মিয়া চৌধুরী, মোসাম্মৎ জেসমিন আক্তার, নিগার সুলতানা, মোহাম্মদ আবু জাফর চৌধুরী, মতিউর রহমান, মো. ফরিদ আহমেদ, মো. ইজাজ হোসেন, মোহাম্মদ এহসানুর রহমান ও খোরশেদ আলম, মোহাম্মদ ইয়াসিন চৌধুরী, ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ আশরাফুর রহমান, মোহাম্মদ শাহজাহান মিয়া, মো. তৌহিদুল আলম, মোহাম্মদ বাদশা মিয়া, মোহাম্মদ কবীর আহমেদ, পারভেজ মোহাম্মদ আমানুল্লাহ চৌধুরী, মো. নুরুল আমিন, আবদুল করিম, মোহাম্মদ কামরুজ্জামান, ফারুকী হাসান, মোহাম্মদ আবদুর রহিম, কাজী সারওয়ার হাবীব, কল্লোল আহমেদ, এস এম পারভেজ তমাল, মোহাম্মদ আলমগীর জলিল, ইকরাম ফরাজী, মোহাম্মদ আজাদুর রহমান, লুৎফুর রহমান মুন্সী, মো. মঞ্জুরুল হোসেন, ইফতেখারুল আলম, আবদুল আজিজ খান, মোহাম্মদ আলম, মোহাম্মদ আকতার হোসেন, মোহাম্মদ ওয়াহিদুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ সেলিম, শেখ মঞ্জুর মোরশেদ, মারুফা আহমেদ, রফিকুল ইসলাম, কিবরিয়া নাইম এবং মোহাম্মদ সোহেল রানা এবং আবুল খায়ের মিয়া।

এদের মধ্যে পুনরায় সি আইপি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন আরব আমিরাত প্রবাসী মোহাম্মদ মাহবুবুল আলম মানিক ও তার সহধর্মিণী মোসাম্মৎ জেসমিন আক্তার। বাংলাদেশে বৈধ চ্যানেলে সর্বাধিক বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণকারী অনিবাসী বাংলাদেশি ক্যাটাগরিতে এই দম্পতিকে সিআইপি হিসেবে নির্বাচিত করা হল। মোহাম্মদ মাহাবুব আলম মানিক এর আগেও দু’বার সিআইপি নির্বাচিত হয়ে ‘বাংলাদেশ ব্যাংক রেমিট্যান্স অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেন।

বিজ্ঞাপন

নির্বাচিত সিআইপিরা প্রজ্ঞাপন জারির তারিখ থেকে ২ বছর পর্যন্ত বিভিন্ন ধরনের সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন। ২ বছরের মধ্যে এসব সিআইপি যেসব সুযোগ সুবিধা ভোগ করবেন –

    • নির্বাচিত সিআইপিকে (এনআরবি) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় থেকে সরকার অনুমোদিত পরিচয়পত্র দেওয়া হবে।
    • সিআইপি কার্ডের মেয়াদকালীন বাংলাদেশ সচিবালয়ে প্রবেশের জন্য প্রবেশপত্র পাবেন ও সরকার নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট বিষয়ক নীতি নির্ধারণী কমিটিতে সদস্য হিসাবে অর্ন্তভুক্ত হবেন।
    • দেশ ও বিদেশে উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে অগ্রাধিকার পাবেন।
    • বিজয় দিবস, স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস, ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, একুশে ফেব্রুয়ারি, শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ইত্যাদি জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ দিবস উপলক্ষে বিদেশের বাংলাদেশ মিশনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত হবেন সিআইপিরা।
    • সিআইপি কার্ডধারীরা ব্যবসা সংক্রান্ত ভ্রমণে বিমান, রেল, সড়ক ও জলযানে আসন সংরক্ষণের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন।
    • বিমান বন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জ ‘চামেলী’ ব্যবহার এবং স্পেশাল হ্যান্ডিলিংয়ের সুবিধা পাবেন।
    • সিআইপি ব্যক্তিদের স্ত্রী, ছেলে, মেয়ে ও নিজের চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে কেবিন সুবিধার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন।
    • বাংলাদেশে উপস্থিত থাকলে বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠানে এবং সিটি করপোরেশনের আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ পাবেন সিআইপিরা।
    • এছাড়া বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের মতো সুযোগ-সুবিধা পাবেন।
বিজ্ঞাপন

2 thoughts on “সিআইপি নির্বাচিত হলেন ৫৭ প্রবাসী বাংলাদেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বাধিক পঠিত