কঠোর লকডাউনেও চলবে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। জেনে নিন কিভাবে প্রবাসীরা যাতায়াত করবেন

লকডাউনে যাতায়াতের নিয়ম

লকডাউনেও প্রবাসী যাতায়াত।। সারাদেশে কঠোর লকডাউনের মধ্যেও চলাচল করবে সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট। এই কঠোর লকডাউনের আওতামুক্ত রাখাহয়েছে বিদেশগামী প্রবাসী কর্মীদের।

 

কিছু বিশেষ নির্দেশনা মেনে কঠোর লকডাউনেও যাতায়াত করতে পারবেন প্রবাসীরা। আর এর ফলে বিদেশগামী  যাত্রীরা তাদেরনির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী বিদেশ যেতে পারবেন। জেনে নিন লকডাউনের মধ্যে প্রবাসীদের যাতায়াতের নিয়মাবলী।

 

করোনাভাইরাস এর সংক্রমণ বিস্তার রোধে প্রাথমিকভাবে আগামী ১লা জুলাই ২০২১ থেকে জুলাই ২০২১  পর্যন্ত কঠোরবিধিনিষেধ বা লকডাউন এর প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে আজ ৩০ জুন মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ এই প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।প্রজ্ঞাপনে সকল ধরণের অফিসআদালত, যানবাহন, দোকানপাট, বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ রাখা সহ দেশের অভ্যন্তরে বেশ কিছুবিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে এবং জনসাধারণ এর চলাচল সীমিত করা হয়েছে।

 

কিন্তু বিদেশগামী কর্মী বা প্রবাসীদেরকে এই কঠোর বিধিনিষেধ বা লকডাউন আওতামুক্ত রাখা হয়েছে। যেসব প্রবাসী ভাইদেরবিদেশ যাওয়া জরুরী তারা এই লকডাউন এর মধ্যেও কিছু নির্দিষ্ট বিধিনিষেধ মেনে যাতায়াত করতে পারবেন। লকডাউনেরমধ্যে অভ্যন্তরীণ রুটে সকল ফ্লাইট  বন্ধ করা হলেও সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল স্বাভাবিক রাখা হয়েছে।

 

কিভাবে যাতায়াত করবেন?

 

বিদেশগামী প্রবাসীরা বা যারা বিদেশ থেকে আসবেন তারা করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যাক্তিগত যানবাহনে যাতায়াত করতেপারবেন। এক্ষেত্রে  ব্যাক্তিগত যানবাহন বলতে বোঝানো হয়েছে প্রবাসী ভাইদের ব্যক্তিগত মালিকানাধীন গাড়ি অথবাব্যক্তিগতভাবে ব্যবহারের জন্যে ভাড়া করা গাড়ী। যেহেতু গণপরিবহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে সেহুতগণপরিবহন ব্যবহার করতে পারবেন না।

 

যাতায়াতের সময় অবশ্যই আপনার ফ্লাইট/বিমানের টিকেট এবং অন্যান্য কাগজপত্র যেমন পাসপোর্ট, ভিসা ইত্যাদি সাথেরাখতে হবে।  যেকোন আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আপনার ফ্লাইটের বা বিমানের টিকেট দেখানো সাপেক্ষে আপনিব্যক্তিগত যানবাহন ব্যবহারপূর্বক করোনা স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাতায়াত করতে পারবেন।

 

লকডাউনের আগে বিদেশগামী প্রবাসীদের অন্যতম একটি দাবি ছিল লকডাউনের মধ্যেও যেন তাদের চলাচল সীমিত করা নাহয় এবং লকডাউনের কারণে তারা যেন আবারো আটকে না পড়েন। আজ মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ এর জারি করা এই প্রজ্ঞাপনেতাদের এই দাবি মেনে নেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বাধিক পঠিত