করোনার প্রভাবে কাজ হারিয়ে দেশে ফিরেছেন ৫ লাখ প্রবাসী

বিদেশ ফেরত প্রবাসী অনুদান

করোনাভাইরাস মহামারির প্রভাবে কাজ হারিয়ে একবছরেরও বেশি সময়ে দেশে ফিরেছেন ৫ লাখ বাংলাদেশী প্রবাসী কর্মী। 

করোনা ভাইরাস মহামারির মধ্যে স্থবির হয়ে পড়েছে সারা বিশ্বের ব্যবসা বাণিজ্য এবং অর্থনীতি। এর প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশী প্রবাসী কর্মীদের মধ্যেও। করোনা মহামারির মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ সহ সারা বিশ্বে অনেক প্রবাসী কর্মী কাজ হারিয়ে বেকার হয়ে পড়েছেন। বেকার হয়ে পড়া অধিকাংশ প্রবাসী কাজ না পেয়ে বাধ্য হয়ে দেশে ফিরে এসেছেন। সরকারি তথ্য অনুযায়ী গত একবছরের বেশি সময়ে কাজ হারিয়ে দেশে ফিরে এসেছেন ৪ লাখ আশি হাজার প্রবাসী শ্রমিক।

বুধবার (২৮ জুলাই) পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য শরিফা খান সংবাদ সন্মেলনে জানান, বিদেশ থেকে যখন প্রবাসীরা ফেরত আসেন, তখন তাদের একটি রেজিস্ট্রি করা হয়। সেই তথ্য অনুযায়ী দেখা যায় চার লাখ ৮০ হাজার ফেরত এসেছেন। সেটার ভিত্তিতে পাঁচ লাখ ফেরত আসা প্রবাসীর তথ্য দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরো জানান করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া এসব প্রবাসীদেরকে আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করতে প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার। এ প্রকল্পের আওতায় ২০২০ সালে দেশে ফিরে আসা পাঁচ লাখ শ্রমিকের মধ্যে প্রাথমিকভাবে দুই লাখ শ্রমিককে সাড়ে ১৩ হাজার টাকা করে অনুদান দেয়া হবে। বিদেশ ফেরত প্রবাসীদের একটি পৃথক ডাটাবেজ তৈরি করে প্রবাসীদের বর্তমান আর্থিক অবস্থা বিবেচনা করে এই অনুদান প্রদান করা হবে বলে জানানো হয়েছে। 

এ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশে ফিরে আসা ৫ লাখ প্রবাসী শ্রমিকদের মধ্যে দুই লাখ শ্রমিককে ১৩ হাজার ৫০০ টাকা করে নগদ অর্থ সহায়তা দেয়া হবে। এছাড়া পুনরায় বিদেশে যাওয়ার সুযোগ, দেশে কাজের সংস্থান, ব্যবসার পুঁজি জোগান-এমন নানা সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করতে প্রকল্পটি সহায়ক হবে।
এম এ মান্নান, এমপি
মাননীয় মন্ত্রী, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়

বুধবার (২৮ জুলাই) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ৪২৭ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘প্রত্যাগত অভিবাসী কর্মীদের পুনঃএকত্রীকরণের লক্ষ্যে অনানুষ্ঠানিক খাতে কর্মসংস্থান সৃজনে সহায়ক প্রকল্প’ অনুমোদন দেয়া হয়।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। মন্ত্রী আরো বলেন এ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশে ফিরে আসা ৫ লাখ প্রবাসী শ্রমিকদের মধ্যে দুই লাখ শ্রমিককে ১৩ হাজার ৫০০ টাকা করে নগদ অর্থ সহায়তা দেয়া হবে। এছাড়া পুনরায় বিদেশে যাওয়ার সুযোগ, দেশে কাজের সংস্থান, ব্যবসার পুঁজি জোগান-এমন নানা সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করতে প্রকল্পটি সহায়ক হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, প্রকল্পের আওতায় ফেরত আসা দুই লাখ শ্রমিককে কর্মমুখী প্রশিক্ষণ ও পরামর্শ দেয়া হবে। ফেরত শ্রমিকদের মধ্যে দক্ষ ২৩ হাজার ৫০০ কর্মী বাছাই করে সরকারের বিভিন্ন স্বীকৃত প্রতিষ্ঠানের সনদের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে দেশে-বিদেশে চাকরিতে তারা বিশেষ সুবিধা পায়।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, একনেক সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘করোনার কারণে প্রবাসীদের অনেকেই চাকরি হারিয়ে দেশে এসেছেন। এতদিন তারা আমাদের দিয়েছেন। এবার আমরা তাদের দেব। যারা চাকরি হারিয়ে দেশে ফিরে এসেছেন, তাদের চাকরির ব্যবস্থা করা হবে।’

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বাধিক পঠিত